তারাও কি যুদ্ধাপরাধীদের পুনর্বাসনের কাজে নেমেছেন?

নাম তার মির্জা জামাল পাশা। ‘পাশা’ বললে সবাই একনামে চেনে। ছোটবেলা থেকেই ছিলেন দুরন্ত। লেখাপড়ায় তার মন বসতো না। অংকের

বিস্তারিত পড়ুন

এখন বঙ্গবন্ধুর চিঠিরও কী কোনই দাম নেই?

“ট্রেনিং তখন শেষ। আমরা চলে আসি চার নম্বর সেক্টরে, কুকিতল সাব-সেক্টরে। একদিন ক্যাম্পে আসেন ভারতীয় এক অফিসার। জানতে চান ফেঞ্চুগঞ্জের

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে ‘বিবিসি’ শোনাতেন কাশেম মোল্লা

১৯৭১ সাল। পাকিস্তানি সেনারা ক্যাম্প বসিয়েছে ঈশ্বরদীর পাকশী পেপার মিল ও হার্ডিঞ্জ ব্রিজ এলাকাতে। সেখান থেকে খুব কাছেই রূপপুর গ্রাম।

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধ ১৯৭১: ভিনদেশি আলোকচিত্রীর চোখে

১৯৭১ সাল। দেশজুড়ে চলছে পাতিস্তানি বাহিনীর অগ্নিবিভীষিকা। মুক্তিকামী বাঙালি শত্রুর বিরুদ্ধে শুরু করে এক অসম লড়াই। দীর্ঘ নয় মাসের যুদ্ধের

বিস্তারিত পড়ুন

কাইয়ার গুদাম স্বাধীন হয় নাই!

১৯৭১ সাল। দেশে চলছে মুক্তিযুদ্ধ। থানায় থানায় বসেছে পাকিস্তানি আর্মিদের ক্যাম্প। ফেঞ্চুগঞ্জে তারা ক্যাম্প বসায় কাইয়ার গুদামে। তাদের সহযোগিতায় এগিয়ে

বিস্তারিত পড়ুন

গৌরীপুর গণহত্যার স্মৃতি রক্ষা হয় নাই

দুই নদীর মিলনস্থল গৌরীপুরে। নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলা থেকে দশ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে এ গ্রামটি। মাছ ধরা, নদীর জলে আনন্দ সাঁতার আর

বিস্তারিত পড়ুন

অবহেলায় পড়ে আছে জগথার গণকবর

পাকিস্তানি আর্মিদের ক্যাম্প ছিল ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ হাসপাতালে। এক সকালে তারা হানা দেয় আমাদের বাড়িতে। ধরে নিয়ে যায় আমার বাবা দর্শন

বিস্তারিত পড়ুন

গণমাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধ থাকুক সারা বছর

মুক্তিযুদ্ধের মাস কি চলে এসেছে? পত্রিকায় চোখ রেখে বাবার কাছে পৃথার প্রশ্ন। কীভাবে বুঝলি? এটা তো খুব সহজ। পত্রিকায় মুক্তিযুদ্ধের

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে জিয়াউর রহমান কি জয়বাংলা বলেছিলেন?

তখন ক্লাস সিক্সে পড়ি। বাবার হঠাৎ টিবি রোগ হয়। এই রোগের চিকিৎসা ছিল না তখন। তিন বছর খুব কষ্ট করেছেন

বিস্তারিত পড়ুন

কাইয়ার গুদাম কি এখনও পাকিস্তানি প্রেতাত্মাদের দখলে?

আপনি নিজেকে বলবেন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের লোক কিন্তু আপনার এলাকায় মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস হারিয়ে যাবে, বধ্যভূমি অরক্ষিত থাকবে, শহীদদের স্মৃতি নদীর জলে

বিস্তারিত পড়ুন

আমাদের ম্যাপ- রক্তের ম্যাপ, ত্রিশ লক্ষ শহীদের ম্যাপ

আমার ডাক নাম ‘আবু’। গ্রামের সবাই এ নামেই ডাকত। আব্বা ছিলেন কামিল লোক। ইসলামি জলসা আর ওয়াজ করে বেড়াতেন। একেক

বিস্তারিত পড়ুন

ভাইরাল হওয়া একটি ছবি ও একজন গেরিলার বীরত্বের গদ্য

ঢাকায় যাওয়া খুব কঠিন ছিল তখন। পথে পথে চলছে পাকিস্তানি সেনা ও রাজাকারদের চেকিং। ধরা পড়লেই জীবন চলে যাবে। তবুও

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরের বীরত্বের খেতাব ‘বীর প্রতীক’ আশির দশকেও কেন ব্যবহৃত হলো ?

১৯৭৩ সালের ১৫ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বসূচক অবদানের জন্য মুক্তিযোদ্ধা শওকত আলীসহ অনেক মুক্তিযোদ্ধাকে ‘বীর প্রতীক’ খেতাব দেয়া হয়। সরকার একই

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে মরতে গিয়ে আমরা ফিরে এসেছিলাম

মায়ের মুখটা এখন আর তেমন মনে করতে পারি না। মা যখন মারা যান আমি তখন ক্লাস সিক্সের ছাত্র। টাইফয়েড হয়েছিল।

বিস্তারিত পড়ুন

বীরের দেশে একাত্তরের ফুটবল যোদ্ধাদেরও স্বীকৃতি দিতে হবে

‘ফুটবলের প্রতি প্রবল ঝোক ছোটবেলা থেকেই। আমার মা আর বন্ধু চিত্রর মা বাড়িতে তাদের শাড়ি খুঁজে পেতেন না। সবাই চিন্তিত!

বিস্তারিত পড়ুন

বঙ্গবন্ধু গ্রেটেস্ট আর শেখ হাসিনা হলেন লেটেস্ট

সময়টা ১৯৬৬। তখন আমি নাইনের ছাত্র। শেখ মুজিব ঘুরছেন সারাদেশ। ছয় দফার দাবীগুলো গণমানুষের কাছে তুলে ধরছেন। তিনি আসবেন চট্টগ্রামেও।

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে প্রতিবাদ: ফ্রান্সে

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পাকিস্তানি সেনাদের গণহত্যার বিরুদ্ধে সারাবিশ্বে নানাভাবে প্রতিবাদ করেছিলেন কিছু মানুষ। ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়েই বিশ্বকে তারা আহ্বান

বিস্তারিত পড়ুন

যারা মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মান করে তারা দেশকেও অসম্মান করবে

সালটা ১৯৬৯। বঙ্গবন্ধু তখন জেলে। সারাদেশে ছাত্র আন্দোলন চলছে। নানা বৈষম্য আর প্রতিবাদ দানা বাধতে থাকে। তখন ক্লাস নাইনে পড়ি।

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে প্রতিবাদ: অস্ট্রেলিয়ায় ও যুক্তরাষ্ট্রে

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পাকিস্তানি সেনাদের গণহত্যার বিরুদ্ধে সারাবিশ্বে নানাভাবে প্রতিবাদ করেছিলেন কিছু মানুষ। ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়েই বিশ্বকে তারা আহ্বান

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে প্রতিবাদ: লন্ডনে

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পাকিস্তানি সেনাদের গণহত্যার বিরুদ্ধে সারাবিশ্বে নানাভাবে প্রতিবাদ করেছিলেন কিছু মানুষ। ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়েই বিশ্বকে তারা আহ্বান

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে প্রতিবাদ: ভারত ও পাকিস্তানে

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পাকিস্তানি সেনাদের গণহত্যার বিরুদ্ধে সারাবিশ্বে নানাভাবে প্রতিবাদ করেছিলেন কিছু মানুষ। ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়েই বিশ্বকে তারা আহ্বান

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরের বীরনারী-০১ ‘ইতিহাস জিয়াকে ক্ষমা করবে না’

আমার বড় বোন ছিলেন ডায়নামিক। নাম সালেহা। সবাই ডাকত শেলী ইসলাম বলে। কিন্তু আমাদের কাছে উনি ‘বুবু’। ময়মনসিংহের মুমিনুন্নেসা কলেজে

বিস্তারিত পড়ুন

রক্তে সিক্ত মাটির গল্প

দীপংকর গৌতম বাঙালির স্বাধীনতা আকাঙক্ষা অনেক পুরনো। টংক, তেভাগা, নানাকার, ফকির-সন্ন্যাসী বিদ্রোহ কোনো কিছুই স্বাধীনতা-সংগ্রাম থেকে আলাদা ছিল না। মানুষ

বিস্তারিত পড়ুন

যেসব গণহত্যার বিচার হয়নি, নেই খোঁজও

১৯৭১ সাল। বিনত বাবু তখন ইন্টারমিডিয়েটের ছাত্র। পরিবারের সঙ্গে থাকতেন সৈয়দপুর শহরের দিনাজপুর রোডের বাড়িতে। শহরটিতে বিহারীরাই সংখ্যায় অধিক ছিল।

বিস্তারিত পড়ুন

সব কথা কি শেখ হাসিনার কাছে যাচ্ছে?

ছোটবেলা থেকেই দুরন্ত ছিলেন আবু জাফর চৌধুরী। বাবা ছিলেন প্রভাবশালী মানুষ। নাম নজমুুল হুদা চৌধুরী। দশ গ্রামের সবাই তাঁকে এক

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরের পদযাত্রা : বিস্মৃত এক মুক্তিযুদ্ধ

১৯৭১ সাল। মুক্তিযুদ্ধ চলছে। নিরীহ নিরপরাধ বাঙালিদের হত্যা করছে পাকিস্তানি সেনারা। দলে দলে মানুষ আশ্রয় নেয় সীমান্তের ওপারে, ভারতে। খোলা

বিস্তারিত পড়ুন

মুজিবনগর সরকার: আজো স্বীকৃতি পাননি গার্ড অব অনার প্রদানকারীরা!

বড় বড় আমগাছ। সংখ্যায় দুই হাজারের মতো। অধিকাংশই শতবর্ষী। প্রচণ্ড রোদ। তবুও চারপাশে শীতল অনুভূতি। দিনময় এখানে চলে পাখিদের কোলাহল।

বিস্তারিত পড়ুন

তালিকা বাড়ার পেছনে প্রথমত দায়ী মুক্তিযোদ্ধারাই

মেঘনা নদীর পাড়ে গৌরিপুর গ্রাম। নরসিংদীর রায়পুর উপজেলার এ গ্রামেই জন্ম ইউনুছের। বাবা নাজির উদ্দিন চৌধুরী ব্যবসা করতেন ভৈরব বাজারে।

বিস্তারিত পড়ুন

কষ্টের সময়টাকে মুছে দিছে শেখের মাইয়া

লেখাটি যখন লিখছিলাম তখনই এলো খবরটি। বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফুল করিম বেঁচে নেই। বুকের ভেতরটা ধুপ করে ওঠে। দিন কয়েক আগেও

বিস্তারিত পড়ুন

গোখরা সাপের পেটে ব্যাঙের জন্ম হয় না

নিজের শরীরের সঙ্গে এখনও যুদ্ধ করছেন এক মুক্তিযোদ্ধা। বেঁচে থাকার যুদ্ধ। দুচোখ নেই তাঁর। তবুও স্বাধীন বাংলাদেশকে অনুভব করেন অন্যভাবে।

বিস্তারিত পড়ুন

অপমানে তখন মরে যেতে ইচ্ছে করতো

পাকিস্তান আর্মিদের ক্যাম্প বসেছে বড়লেখা উপজেলাতে। তারিখটা ৩ এপ্রিল ১৯৭১। একটি কাজে বড় ভাইয়ের সঙ্গে যাই উপজেলা সদরে। বাজারের পাশেই

বিস্তারিত পড়ুন

১৯৭১ : রক্তমাখা যুদ্ধকথা

দীপংকর গৌতম ১৯৭১ : রক্তমাখা যুদ্ধকথা : সালেক খোকন। প্রকাশক : সময় প্রকাশন। প্রচ্ছদ : ধ্রুব এষ। মূল্য : ৩৬০

বিস্তারিত পড়ুন

১৯৭১: রক্তমাখা যুদ্ধকথা

বইয়ের নাম         : ১৯৭১: রক্তমাখা যুদ্ধকথা প্রচ্ছদ এঁকেছেন : ধ্রুব এষ প্রকাশক               : সময় প্রকাশন  বইয়ের ধরণ        : গবেষণা ও

বিস্তারিত পড়ুন

যুদ্ধাহতের ভাষ্য

বইয়ের নাম         : যুদ্ধাহতের ভাষ্য প্রচ্ছদ এঁকেছেন : নিয়াজ চৌধুরী তুলি প্রকাশক               : কথাপ্রকাশ বইয়ের ধরণ        : গবেষণা ও প্রবন্ধগ্রন্থ

বিস্তারিত পড়ুন

জীবনের মায়া একাত্তরে ছিল না

“আমগো বাড়ি ছিল পদ্মার পাড়ে। চর এলাকা। দিনভর নদীর বুকে সাঁতার কাটতাম। মাঝেমধ্যে মাছ ধরতাম বালিজাল দিয়া। আনন্দ ছিল অন্যরকম।

বিস্তারিত পড়ুন

গণ্ডগোল নয়, হয়েছিল মুক্তিযুদ্ধ

“৭ মার্চ ১৯৭১। আমার বয়স তখন আঠারো। ক্লাস টেইনে পড়ি। বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ভাষণ দেন রের্সকোস ময়দানে। সে ভাষণটি শুনি রেডিওতে।

বিস্তারিত পড়ুন

গণহত্যার বয়ান: গৌরিপুর গণহত্যার ইতিহাস হারিয়ে যাচ্ছে নদীর জলে

নদী পাড়ের গ্রাম গৌরিপুর। দুইটি নদীর মিলনস্থল এখানেই। পূর্বদিক থেকে পুরাতন ব্রহ্মপুত্র আর উত্তর দিক থেকে মেঘনা এসে মিশেছে। নরসিংদীর

বিস্তারিত পড়ুন

রক্তে সিক্ত মাটির গল্প

দীপংকর গৌতম বাঙালির স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষা অনেক পুরনো। টংক, তেভাগা, নানাকার, ফকির-সন্ন্যাসী বিদ্রোহ—কোনো কিছুই স্বাধীনতাসংগ্রাম থেকে আলাদা ছিল না। মানুষ একের

বিস্তারিত পড়ুন

ওই ভাষণই জীবনের গতি পাল্টে দেয়

“ঢাকায় তখন আর্মি নেমেছে। ওরা সারাদেশ কব্জায় নিতে থাকে। বিহারিরা ছিল পাকিস্তানিদের পক্ষে। ২৫ মার্চের পর ওরা বেদেরগঞ্জের নদীপথে নৌকায়

বিস্তারিত পড়ুন

১৯৭১: দেশে দেশে প্রতিবাদ ও উদ্যোগ

১৯৭১ সালের মহান স্বাধীনতাসংগ্রামেও দেশে দেশে এমন কিছু মানুষ ছিলেন, যাঁরা নানাভাবে প্রতিবাদ করেছিলেন বাংলাদেশে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গণহত্যার। ছোট ছোট

বিস্তারিত পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর তুলনা শুধু বঙ্গবন্ধুই

খুলনায় তখন বিহারিদের আধিপত্য ছিল বেশি। বাঙালিদের ওরা দেখতে পারত না। ওদের অধীনে চলতে হবে, তখনও উর্দুতে কথা বলতে হবে–

বিস্তারিত পড়ুন

‘রক্তে রাঙা একাত্তর’ এখন সেইবই ইবুক স্টোরে

সালেক খোকন-এর ‘রক্তে রাঙা একাত্তর’ বিষয়: মুক্তিযুদ্ধ ৳ 30 / $0.99 সালেক খোকনের লেখা ‘রক্তে রাঙা একাত্তর’ একাত্তরের গণহত্যা ও

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে ‘জয় বাংলা’ স্লোগানই ছিল মূল শক্তি

দাদা, বাড়ি আমার ভারতের পশ্চিম দিনাজপুরে, বংশীহারি থানায়। নানাবাড়ি কুসুমণ্ডি থানাতে। পার্টিশনের আগেই বাবা চলে আসেন এ পাশে, দিনাজপুরের বিরলে।

বিস্তারিত পড়ুন

বিরোধিতা করলেও জাসদ বঙ্গবন্ধুর শত্রু ছিল না

তিন ভাই ও এক বোনের সংসারে জমির আলী দ্বিতীয়। বাবা ছিলেন ভূমিহীন কৃষক। ফলে অভাব আর কষ্ট ঘর ছাড়ত না।

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে পিতার যুদ্ধাপরাধও ক্ষমা করেননি মুক্তিযোদ্ধারা

“কোনাবন ও পুটিয়া তখন মুক্তাঞ্চল। পাকিস্তানি সেনারা আপ্রাণ চেষ্টা করে সেটি দখলে নেওয়ার। এয়ার হামলাও চালায় তারা। কিন্তু তবু আমরা

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযোদ্ধাদেরও দেশের কাজে নিয়োজিত করা দরকার ছিল

দুই ভাই ও এক বোনের সংসারে আমি সবার বড়। বাবার কোনো সম্পত্তি ছিল না। টাকা-পয়সা ছিল কম। দিনমজুরি করতেন। তবে

বিস্তারিত পড়ুন

স্বাধীনতার আনন্দে সব কষ্ট ভুলে গেছিলাম

আমগো পরিবার চলছে কষ্টে। বাবা কৃষিকাজ করত। নিজের জমি ছিল না। মাইনষের জমি বর্গা নিত। বাবার লগে মাঠে কাজ করতাম।

বিস্তারিত পড়ুন

শেখের বেটি টিকলে জঙ্গিবাদ টিকব না

“ছোটবেলা থিকাই চঞ্চল আছিলাম। বন্ধুগো লগে ফুটবল খেলতাম। গোলি ছিলাম। পরজুনা গ্রামে একবার বড় খেলা হইল। আমারে ওরা হায়ার করল।

বিস্তারিত পড়ুন

মানুষের মন আলোকিত করতে না পারলে সোনার বাংলা হবে না

“ট্রেনিং তখন শেষ। আমাদের পাঠানো হয় তরঙ্গপুরে। সেখান থেকে বরাহার ক্যাম্পে। ক্যাম্পের দায়িত্বে ছিলেন এসএস বার্ট। তাঁর নির্দেশেই অপারেশন শুরু।

বিস্তারিত পড়ুন

এখন অমুক্তিযোদ্ধারাই শনাক্ত করছে মুক্তিযোদ্ধাদের

“আমগো বাল্যকালটা ছিল অনেক আনন্দের। শীতের সময়টায় মজা হত বেশি। অন্যের গাছের রস পেরে খাওয়ার আনন্দ ছিল নিত্যদিনকার। সময়টা ১৯৬৫

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের ভূমিকা উপেক্ষিত ছিল

“১৯৬৫ সাল। মেট্রিক পাস করেছি মাত্র। একটা চাকরিও পেয়ে যাই তখন। দিনাজপুরের হাউজিং অ্যান্ড স্যাটেলমেন্ট অফিসের ওয়ার্ক অ্যাসিস্ট্যান্ট। কয়েক মাসের

বিস্তারিত পড়ুন

আমরা বাঙালি, আমাদের কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না

ইতিহাস বিকৃত প্রসঙ্গে জয় বলেন, ৭৫-এর পর থেকে পাঠ্যবইয়ে মিথ্যে ইতিহাস শেখানো হয়েছে। উদ্দেশ্যটা ছিল সত্য মানুষ ভুলে যাবে। মিথ্যা

বিস্তারিত পড়ুন

তেঁতুল হুজুররা সঙ্গে থাকলে কিন্তু সোনার বাংলা হইব না

চম্পকনগর বাজারের পাশ দিয়েই চলে গেছে পূর্ব দিক বরাবর একটি পাকা রাস্তা। খানিক এগোতেই বদলে যায় আশপাশের দৃশ্য। লাল মাটির

বিস্তারিত পড়ুন

জঙ্গিবাদের কাছেও দেশ হেরে যাবে না

উত্তাল মার্চ। আমি তখন ঠাকুরগাঁওয়ে। ৮ মার্চ ১৯৭১। এক দোকানে বসে রেডিওতে শুনি বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ। তিনি বললেন, ‘আমি

বিস্তারিত পড়ুন

বিএনপি-জামায়াতের বিধ্বংসী রাজনীতিই উসকে দিয়েছে জঙ্গিবাদ

রাষ্ট্রীয়ভাবে ধর্মান্ধতা প্রশ্রয় দেওয়া যাবে না। জঙ্গিবাদ ইস্যুতে ‘জিরো টলারেনস’ দেখাতে হবে। পারিবারিক ও সামাজিকভাবেও উদ্যোগ নিতে হবে সচেতনতার। আমরা

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধের সরকার থাকলেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠা পাবে

‘‘৪ ডিসেম্বর, ১৯৭১। আমরা তখন বিজয়নগর গ্রামে। ১৩ জনের গেরিলা দল। আমি কমান্ডার। খুব কাছেই যশোরের খোঁজারহাট বাজার। বিকেলের দিকে

বিস্তারিত পড়ুন

অনেক মাদ্রাসায় দেখি বাংলাদেশের ফ্ল্যাগ ওড়ে না

“সত্তরের আগের কথা। আমরা তহন ছোডো। আইয়ুব খান ও ফাতেমা জিন্নার মধ্যে নির্বাচন। আইয়ুব খানের মার্কা ‘গোলাপফুল’। ফাতেমা জিন্নার ‘হেরিকেন’।

বিস্তারিত পড়ুন

চোরগুলোর কারণেই আজ এ অবস্থা

বীর এক মুক্তিযোদ্ধার জীবন কাটছে প্রায় নিভৃতে, ঢাকার মেরাদিয়ায়। শুধু মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েই তিনি থেমে যাননি, স্বাধীন দেশে গণমানুষের অর্থনৈতিক

বিস্তারিত পড়ুন

স্বাধীন দেশের উন্নতিটাই আমার মন ছুঁয়ে যায়

“আমগো বাড়িডা ছিল নদীর পাড়ে। এলাংজানি নদী। ধলেশ্বরীর শাখা। বর্ষায় কোশা দিয়া স্কুলে যাইতাম। নৌকা ডুইবা একবার তো মরার দশা!

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধে গুলি খাইছি, এইডা কতবার প্রমাণ করতে হইব?

ট্রেনিং তখন শেষ। আমাদের পাঠিয়ে দেওয়া হয় মাগুরার শ্রীপুরে, আকবর চেয়ারম্যানের কাছে। তাঁর অধীনে ছিল মুক্তিবাহিনীর একটি দল। আমরা যোগ

বিস্তারিত পড়ুন

শেখের মাইয়া ইতিহাসের দায় থেকে দেশকে মুক্ত করেছেন

হঠাৎ খেয়াল করলাম আমার ডান হাত ও বুকের বাম পাশটা ভেজা। হাত দিয়ে স্পর্শ করতেই বুঝে যাই রক্তে ভিজে যাচ্ছে।

বিস্তারিত পড়ুন

বাঙালি যে এক হতে পারে মুক্তিযুদ্ধই তার প্রমাণ

একাত্তরে ধর্মই প্রধান বিষয় ছিল রাজাকারদের কাছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় ফরিদপুরের এক হিন্দু ছেলের দায়িত্ব ছিল আমাদের খাওয়ানো। একদিন গোলাগুলি চলছে

বিস্তারিত পড়ুন

জাসদের আন্দোলনের ফায়দা লুটেছিল স্বাধীনতাবিরোধীরাই

সকাল তখন ৭টা। ছয়টা প্লেনে পাকিস্তানি সেনারা আমাদের ওপর বোম্বিং করে। সেসময় চোখের সমানেই শহীদ হন ১৩-১৪ জন মুক্তিযোদ্ধা। তাঁদের

বিস্তারিত পড়ুন

স্বাধীন দেশে নিজের মাটিই বেদখলে

শীতের কেবল শুরু। হালকা কুয়াশা জাল বুনেছে মাত্র। শিশির ভেজা ঘাস আর কুয়াশার জাল ভেঙে চলছে গ্রামের মানুষ। এমনই এক

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসই পথ দেখাবে

সংসারটা বড় ছিল। সাত ভাই, এক বোন; তিন নম্বরে আমি। বাবার গৃহস্থীর টাকায় পরিবার চলত না। সংসারে ছিল অভাব। বড়

বিস্তারিত পড়ুন

দেশটা হল মায়ের মতন

“২২ সেপ্টেম্বর ১৯৭১। আমাকে বদলি করা হয় ৩ নং সেক্টরের হেড কোয়ার্টার হেজামারায়। কামান্ডার ছিলেন কে এম শফিউল্লাহ। সাহসী মুক্তিযোদ্ধাদের

বিস্তারিত পড়ুন

একজন রাজাকার চিরকালই রাজাকার

“আমার ছোটবেলাটা ছিল অন্যরকম। স্কাউটিং করতাম। নাটকের প্রতিও ঝোঁক ছিল। তখন ক্লাস সিক্সে। মকবুল স্যার নাম লিখে নিলেন। আমি তো

বিস্তারিত পড়ুন

বাংলাদেশ হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনানির্ভর

শাহরিয়ার কবির অনুলিখন: সালেক খোকন আমাদের ভুলে গেলে চলবে না—‘ইসলামের কার্ড’ হল জামায়াতের কার্ড, এটা বিএনপির কার্ড। আওয়ামী লীগ ওই

বিস্তারিত পড়ুন

সত্যিকারের ঘটনাগুলো বাঁচিয়ে রাখতে হবে

চারটা গুলি লেগে আমার ডান হাতের মেইন রগডা ছিড়ে যায়। হাতটা অকেজো হয়ে গিয়েছিল। ডাক্তাররা হাতটা কেটে ফেলতে চেয়েছিল। স্বাধীনের

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরে আনন্দ ও বীরত্ব প্রকাশের ভাষা ছিল ‘জয় বাংলা’

এক মুক্তিযোদ্ধার নাম বদলে গেছে একাত্তরে। ‘বীর প্রতীক’ খেতাব পেয়েছেন তিনি। ছিলেন ভীষণ সাহসী। মৃত্যুর আশঙ্কা সত্ত্বেও যুদ্ধে এগিয়ে যেতেন;

বিস্তারিত পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর ভাষণই গোটা জাতিকে এক করে দেয়

এক অপারেশনে এই বীর মুক্তিযোদ্ধা মারাত্মকভাবে আঘাত পান। পাকিস্তানি সেনাদের ছোঁড়া গুলিতে তাঁর ডান হাতের কবজির উপরের হাড়টি গুঁড়ো হয়ে

বিস্তারিত পড়ুন

বঙ্গবন্ধু আর জয় বাংলা যিনি মানেন না তিনি বাঙালি নন

“নুরুল আবেদিন তহন ক্লাসের ফার্স্ট বয়। এহন সে নাসার বিজ্ঞানী। সেকেন্ড বয় প্রাণকৃষ্ণ। শেখ বোরহান উদ্দিন কলেজের প্রফেসর সে। আমি

বিস্তারিত পড়ুন

আমরা অনেক তাড়াতাড়ি স্বাধীনতা পেয়ে গেছি

‘সবার হাতে হাতে লাঠি। সবাই তখন প্রস্তুত। বঙ্গবন্ধু নির্দেশ দিলেই যেন যুদ্ধ শুরু হবে। কিন্তু তিনি সরাসরি কিছু বললেন না।

বিস্তারিত পড়ুন

দেশটা এগিয়ে যাবে প্রজন্মের হাত ধরেই

‘আমার ডান ও বাম পায়ে গুলি লাগে। ডান পায়ের ভেতর স্প্লিন্টার এখনও রয়েছে। চাপ পড়লেই অনেক ব্যথা করে। ফলে নামাজ

বিস্তারিত পড়ুন

মানুষের মাংস যে পিঁপড়ার পছন্দ এইডা একাত্তরে বুঝছি

স্যার কইল, ‘এলএমজিডা তোর কাছে রাখ।’ সাইডে স্টেনগানও। আইলের ধার ঘেইষা পজিশনে রইছি। ওগো ক্যাম্প একটু ওপরে। খুব কুয়াশা। কিছু

বিস্তারিত পড়ুন

ওরা কি চাইব এই দেশে শান্তি থাকুক

একাত্তরের ২৫ মার্চ। ঢাকায় মানুষ মারা শুরু হইল। খবরটা আমরা পাই মাইনসের মুহে মুহে। তহনও গ্রামে আর্মি আহে নাই। ব্রাক্ষণবাড়িয়া

বিস্তারিত পড়ুন

ইসলামী ব্যাংকের টাকা ও সামষ্টিক নির্লিপ্ততার ব্যবচ্ছেদ

“অনেক গণমাধ্যমই নানা অনুষ্ঠানে স্পন্সর হিসেবে কিংবা বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে নিচ্ছে ইসলামী ব্যাংকের টাকা। এ বিবেচনায় টিভি চ্যানেলের হিসাব কষলে তা

বিস্তারিত পড়ুন

শেখের মাইয়ার ব্রেইনই যথেষ্ট

‘‘আমি তহন ক্লাস টুতে। পেট ফোলা কালাজ্বরে মানুষ মরতাছে। ওই রোগ আমারেও ধরে। প্রাণে বাঁইচা গেলেও আমার লেহাপড়া হয় বন্ধ।

বিস্তারিত পড়ুন

১৭ এপ্রিল: স্মৃতিতে গার্ড অব অনার

মঞ্চ তৈরির দায়িত্ব ছিল স্থানীয় সংগ্রাম কমিটির। নাম জানতে চাইলে তিনি মোমিন, জজ মাস্টার, আইয়ুব ডাক্তার, সৈয়দ মাস্টার, রফিক মাস্টার,

বিস্তারিত পড়ুন

বিস্মৃত আরেক যুদ্ধের গল্প

১৯৭১ সাল। মুক্তিযুদ্ধ চলছে। নিরীহ নিরাপরাধ বাঙালিদের নির্মমভাবে হত্যা করছে পাকিস্তানি সেনারা। তাদের ভয়ে জীবন নিয়ে দলে দলে মানুষ আশ্রয়

বিস্তারিত পড়ুন

রিকশা চালাই তাই একাত্তরের বন্ধুরাও কথা কয় না

রিকশা চালিয়ে সংসারের খরচ চালান এক মুক্তিযোদ্ধা। তা-ও প্রায় আটত্রিশ বছর ধরে। জীবনযুদ্ধে টিকে থাকার সংগ্রামে মহাজনের একটি রিকশাই তার

বিস্তারিত পড়ুন

১৯৭১: যুদ্ধাহতের বায়ন

প্রকাশক : ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ (বইমেলায় স্টল নং ৩২৯-৩৩২) প্রচ্ছদ: জহিরুল আবেদীন জুয়েল মূল্য : ২৫০ টাকা। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ আমাদের

বিস্তারিত পড়ুন

এটা ভিক্ষুকের হাত নয়, যোদ্ধার হাত

২৫ মার্চ, ১৯৭১। মধ্যরাত। ডা. মঈনুল এসে খবর দিল ঢাকায় আর্মি নামছে। যুদ্ধ শুরু। অস্ত্র লাগবে। বিএম কলেজে ইউওটিসির অস্ত্র

বিস্তারিত পড়ুন

এই মাটিতে এহনও আমগো রক্তের গন্ধ আছে

‘‘পড়াশুনা মোটামুটি করলেও ছোটবেলায় খুব দুষ্ট আছিলাম। পাঁচ বোনের এক ভাই। সবার ছোডো আমি। আদরের আর শেষ নাই। বাড়িতে কয়ডা

বিস্তারিত পড়ুন

ধর্মনিরপেক্ষ দেশ চেয়েছি, এখন তো ধর্মান্ধতার দেশ চলছে

আমগো বাল্যকালডা ছিল অন্য রকম। বন্ধুরাই তহন প্রাণ। টুটুল, মাশরাফি, বাদল, আতিয়ার আরও অনেকেই। সবাই মিলে বল খেলতাম। আমি খেলতাম

বিস্তারিত পড়ুন

পাকিস্তান-ফেরত অফিসারদের জায়গা দেওয়া ছিল মস্ত ভুল

পাশের দেশ ভারতের কথাই ধরেন, দেশের স্বার্থে সবাই এক হয়ে আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের পথ বের করে। অথচ আমাদের দেশে

বিস্তারিত পড়ুন

সব মুসলিম লীগার মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে কাজ করেনি

আজাদ আলীদের পরিবারটি ছিল বেশ বড়। এগার ভাইবোন। তাদের মধ্যে আজাদ সপ্তম। সংসার বড় হলেও আদরের এতটুকু কমতি ছিল না

বিস্তারিত পড়ুন

তাঁর আমলে কেন মুক্তিযোদ্ধাকে আত্মহত্যা করতে হইল

ছোট্ট একটি রুম। দখিনা জানালা। খাটের ওপর পা ছড়িয়ে বসে আছেন আবদুল হান্নান। বয়স ষাট। চুল-দাড়ি ধবধবে সাদা। দৃষ্টি তাঁর

বিস্তারিত পড়ুন

মানুষ মেরে কি ধর্মরক্ষা হয়

‘‘কয়েক জন মুক্তিযোদ্ধাকে ভর্তি হতে হবে শান্তি কমিটিতে। গুপ্তচরের মতো জেনে আসতে হবে পাকিস্তানি সেনাদের সব পরিকল্পনা। কাজটি যেমন কঠিন,

বিস্তারিত পড়ুন

রাজাকারদের দলও নিষিদ্ধ করতে হবে

আমার ভাইকে যারা হত্যা করেছে, বোনকে যারা তুলে দিয়েছে পাকিস্তানিদের হাতে, তাদের ক্ষমা নেই। জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা হয়েও তাদের ক্ষমা

বিস্তারিত পড়ুন

অবশ্যই বঙ্গবন্ধু ‘জয় বাংলা’ বলছিলেন

 ‘‘তহন স্কুলে পড়ি। পড়াশুনায় হেব্বি কম্পিটিশন। হাবিব, মোশারফ, নুরুল হুদা আর মজিবুর পিছে লাইগা থাকত– কী পড়ি, কখন পড়ি এইসব

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধের সময় জাতিভেদ ছিল না

প্রকৃতির ছোঁয়াতে বেড়ে ওঠেন ধীরেন্দ্র। ছোটবেলা থেকেই ছিলেন ডানপিটে। গাছের মগডালে বসে পেয়ারা খাওয়া আর বন্ধু রসু, সাধন, রবীন্দ্র ও

বিস্তারিত পড়ুন

পাকিস্তান আমলে কষ্ট গেছে

নাম তাঁর চাঁনমিয়া সরদার। গ্রামের লোকেরা ডাকত চাঁন বলে। সাত ভাই তিন বোনের সংসারে তিনি চতুর্থজন। বাবার জমিজমা যা ছিল,

বিস্তারিত পড়ুন

বইমেলায় সালেক খোকন এর বই

প্রকাশক : ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ (স্টল নং-৩৭,৩৮,৩৯) বাংলাদেশের যে কোন প্রান্ত থেকে বইগুলো পেতে এখানে  ‘ক্লিক’    করুন> Please follow and

বিস্তারিত পড়ুন

যুদ্ধদিনের গদ্য ও প্রামাণ্য

প্রচ্ছদ : নিয়াজ চৌধুরী তুলি প্রকাশক : ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ (বইমেলায় স্টল নং-৩৭,৩৮,৩৯) বইটির মূল্য : ২৫০ টাকা মুক্তিযুদ্ধ বাঙালির

বিস্তারিত পড়ুন

সেরা বুদ্ধিজীবীদের ওরা হত্যা করেছিল

নাম তাঁর ছানাওয়ার উদ্দিন আহমেদ। গ্রামের সবাই ডাকে ‘ছানু মিয়া’ বলে। ছোটবেলা থেকেই ছিলেন জেদি আর দুরন্ত। হান্নান, আকলু, ফুরুত

বিস্তারিত পড়ুন

রাজাকারের সর্বনিম্ন শাস্তি ফাঁসি

এটা ভাবলে ভালো লাগে। বাংলার মাটিতেই ওদের বিচার হচ্ছে। কিন্তু আমাদের দাবি তো ‘ফাঁসি’। ১৯৭১ সালে ওরা যা করছে তা

বিস্তারিত পড়ুন

দেশটা তো মায়ের মতো

 ‘‘আমগো সংসারডা ছিল বড়। চার বোন পাঁচ ভাই। জমিজমা ছিল না। গরিব খাইট্টা খাওয়া মানুষ। একবেলা খাতি পারতাম, একবেলা পারতাম

বিস্তারিত পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর মেয়ে রাজাকারের সঙ্গে আঁতাত করতে পারে না

নাম তাঁর মাহমুদ পারভেজ জুয়েল। সবাই ডাকে ‘জুয়েল’ নামে। বাবা আবদুল মালেক পুলিশ অফিসার। আজ এক থানায় তো কাল অন্য

বিস্তারিত পড়ুন

পাকসেনাদের বিচার করা দরকার ছিল

‘‘১৯৬৫ সাল। ভারত পাকিস্তানের ওপর ট্যাংক আক্রমণ চালায়। ক্যামকারন সেক্টর হয়ে লাহোর দখলে নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাদের। কিন্তু তা নস্যাৎ

বিস্তারিত পড়ুন

তাঁর ভালোবাসার সুযোগ নিয়াই ওরা তাঁরে খুন করসে

আলাপচারিতার শুরুতেই ভদ্রতাবশত প্রশ্ন করেছিলাম, ‘‘কেমন আছেন?’’ চোখেমুখে কষ্ট ছড়িয়ে মুক্তিযোদ্ধা তারা মিয়া উত্তর দিয়েছিলেন– ‘‘দেখতেই তো পারতাছেন, এইডা কোনো

বিস্তারিত পড়ুন

আমি সেনাবাহিনীর ট্রেইন্ড যোদ্ধা, বসে থাকতে পারি না

 ‘‘উনিশ শ একাত্তর। এপ্রিল তখনও শেষ হয়নি। হেলিকপ্টারে পাকিস্তানি সেনারা নামে বরিশাল শহরে। সড়কপথে শহরে ঢোকার ব্রিজগুলো আগেই আমরা ভেঙে

বিস্তারিত পড়ুন

শেখের বেটিই মুক্তিযোদ্ধাগো কষ্ট বুঝে

পরবর্তী প্রজন্মই পারবে দেশ এগিয়ে নিতে। বুকভরা আশা নিয়ে তাদের উদ্দেশে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কুদ্দুস মীর বলেন– ‘তোমরা লেখাপড়া কইরা

বিস্তারিত পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিরক্ষার পরিবর্তে ধ্বংস করা হয়েছে

ষাটের দশকের কথা। গ্রামাঞ্চলে ফুটবল তখন খুবই জনপ্রিয় খেলা। নানা জায়গায় আয়োজন হত ফুটবল টুর্নামেন্টের। খেলা দেখতে আমরা প্রায়ই যেতাম

বিস্তারিত পড়ুন

মিথ্যা দিয়ে ইতিহাসের সত্য বদলানো যায় না

 ‘‘মোজাম্মেল হক সমাজি ছিলেন আমার বন্ধু। বয়সে দু’বছরের বড়। মাস্টার্সের পর কিছুদিন তিনি কলেজে অধ্যাপনা করেন, চাঁপাইতে। পরে ঈশ্বরদীতে, এক

বিস্তারিত পড়ুন

সব মুসলিম লীগার মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে কাজ করেনি

আজাদ আলীদের পরিবারটি ছিল বেশ বড়। এগার ভাইবোন। তাদের মধ্যে আজাদ সপ্তম। সংসার বড় হলেও আদরের এতটুকু কমতি ছিল না

বিস্তারিত পড়ুন

ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ

সালটি ১৯৬৯। ম্যাট্রিক পাশ করেছি তখন। বাবা আমায় পাঠিয়ে দেয় চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে। আমাদের ব্যবসা ছিল সেখানে। আবুল বেকারি ও আহমেদিয়া

বিস্তারিত পড়ুন

মানুষ মেরে কি ধর্মরক্ষা হয়

‘‘কয়েক জন মুক্তিযোদ্ধাকে ভর্তি হতে হবে শান্তি কমিটিতে। গুপ্তচরের মতো জেনে আসতে হবে পাকিস্তানি সেনাদের সব পরিকল্পনা। কাজটি যেমন কঠিন,

বিস্তারিত পড়ুন

তাঁর আমলে কেন মুক্তিযোদ্ধাকে আত্মহত্যা করতে হইল

ছোট্ট একটি রুম। দখিনা জানালা। খাটের ওপর পা ছড়িয়ে বসে আছেন আবদুল হান্নান। বয়স ষাট। চুল-দাড়ি ধবধবে সাদা। দৃষ্টি তাঁর

বিস্তারিত পড়ুন

এই মাটিতে এহনও আমগো রক্তের গন্ধ আছে

‘‘পড়াশুনা মোটামুটি করলেও ছোটবেলায় খুব দুষ্ট আছিলাম। পাঁচ বোনের এক ভাই। সবার ছোডো আমি। আদরের আর শেষ নাই। বাড়িতে কয়ডা

বিস্তারিত পড়ুন

ধর্মনিরপেক্ষ দেশ চেয়েছি, এখন তো ধর্মান্ধতার দেশ চলছে

‘‘আমগো বাল্যকালডা ছিল অন্য রকম। বন্ধুরাই তহন প্রাণ। টুটুল, মাশরাফি, বাদল, আতিয়ার আরও অনেকেই। সবাই মিলে বল খেলতাম। আমি খেলতাম

বিস্তারিত পড়ুন

পাকিস্তান-ফেরত অফিসারদের জায়গা দেওয়া ছিল মস্ত ভুল

‘‘গ্রামে তখন ফুটবলটা কম চলত। হাডুডু ছিল জনপ্রিয় খেলা। ছোটবেলা থেকেই ছিলাম সুঠামদেহী ও লম্বা। তাই সবাই খেলায় নিতে চাইত।

বিস্তারিত পড়ুন

শেখের মাইয়াই আমগো খেয়াল রাখে

তাঁর নাম বাকি মোল্লা। বয়স আটষট্টির মতো। একাত্তরে পাকিস্তানি সেনাদের গুলির আঘাতে কেটে ফেলতে হয় তাঁর ডান পা। শরীরের ভারে

বিস্তারিত পড়ুন

রাজাকারদের উত্থান দেখে ভাবিনি বিচার হবে

১৮ ডিসেম্বর ১৯৭১। বাউড়া থেকে আমাদের ডিফেন্স গাড়ি লালমনিরহাট বড়খাতা রেল স্টেশনের কাছাকাছি এসেছে। সেখানে ছিল পঁচিশ পাঞ্জাব রেজিমেন্টের শক্তিশালী

বিস্তারিত পড়ুন

গার্ড অব অনার দিয়েছিলেন যারা

বৈশাখ মাস। প্রচণ্ড রোদ। তবুও চারপাশে শীতল অনুভূতি। বড় বড় আমগাছ। সংখ্যায় দুই হাজারের মতো। অধিকাংশই শতবর্ষী। দিনময় এখানে চলে

বিস্তারিত পড়ুন

গণকবরের পেছনের গদ্য

১৯৭১ সাল। বিনত বাবু তখন ইন্টারমিডিয়েটের ছাত্র। পরিবারের সঙ্গে থাকেন সৈয়দপুর শহরের দিনাজপুর রোডের বাড়িতে। শহরটিতে বিহারীরাই সংখ্যায় অধিক ছিল।

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরডা মনে পইরা যায়

‘২৫ মার্চ ১৯৭১। রাত বারটার দিকে ঢাকায় আর্মি নামে। তারা গণহত্যা চালায় রাজারবাগ পুলিশ লাইন, জগন্নাথ হল ও ইপিআর ক্যাম্পে।

বিস্তারিত পড়ুন

শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীদের ক্ষমা করেননি বঙ্গবন্ধু

২৫ মার্চ ১৯৭১। রাত ৯টা। জহিরুল হক মাঠ থেকে ট্রেনিং শেষে ফিরেছি বাসায়। পেটে প্রচ- ক্ষিধে। মা খাইয়ে দিচ্ছিলেন। হঠাৎ

বিস্তারিত পড়ুন

৭১-এর বীরদের রক্তাক্ত স্মৃতি

১৯৭১ সালে মো. ফরিদ মিয়া ছিলেন সেনাবাহিনীর সিপাহী। আর্মি নম্বর ৩৯৫৩৭৭২। যুদ্ধ করেছেন ২ নম্বর সেক্টরে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় এক

বিস্তারিত পড়ুন

ওটাই ছিল স্বাধীনতার ঘোষণা

মেঘনা নদীর পাড়ে গৌরিপুর গ্রাম। নরসিংদীর রায়পুর উপজেলার এ গ্রামেই জন্ম ইউনুছের। বাবা নাজির উদ্দিন চৌধুরী ব্যবসা করতেন ভৈরব বাজারে।

বিস্তারিত পড়ুন

স্বাধীনতা দিবস হওয়া উচিত ছিল ৭ মার্চ

১৪ আগস্ট। পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস। তখন এই দিনটি ঘটা করেই পালন করা হত। কীর্তনখোলা নদীতে চলত নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা। নানা রঙ-ঢঙে

বিস্তারিত পড়ুন

‘এটা তো জিন্দাবাদের দেশ না’

২৫ মার্চ ১৯৭১। ঢাকায় আর্মি নামার খবর ছড়িয়ে পড়ে মানুষের মুখে মুখে। বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী একটি ডিফেন্স গড়ে তোলেন টাঙ্গাইলে।

বিস্তারিত পড়ুন

আহত মুক্তিযোদ্ধাদের চোখে গণজাগরণ মঞ্চ

৫ ফেব্রুয়ারি গণজাগরণ মঞ্চের এক বছর পূর্ণ হল। যাঁদের আত্মত্যাগের কারণে এ দেশটা স্বাধীন হয়েছে, দেশের জন্য যাঁরা হারিয়েছেন নিজের

বিস্তারিত পড়ুন

আর দাঁড়াতে পারলাম না

বাবার কথা খুব একটা মনে নেই শুকুর আলীর। বাবা আক্তার হোসেন ছিলেন খেটে-খাওয়া কৃষক। জমি তেমন ছিল না। অন্যের জমিতে

বিস্তারিত পড়ুন

যুদ্ধাহতের ভাষ্য

আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস গভীর আত্মত্যাগের ইতিহাস, অবিশ্বাস্য সাহস, বীরত্ব এবং বিশাল এক অর্জনের ইতিহাস। যখন কেউ এই আত্মত্যাগ, বীরত্ব আর

বিস্তারিত পড়ুন

ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করবে না

নাম তার জয়নাল আবেদীন বাদশা। সবাই ডাকে বাদশা বলে। ছোটবেলা থেকেই তিনি একটু মুডি। দেখতে সুদর্শন। কথাবার্তা বলেন কম। পরিবারের

বিস্তারিত পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর নাম তখন বলাই যেত না

বাবা-মায়ের আদরের সন্তান লোকমান। ৪ ভাই ৪ বোনের মধ্যে তৃতীয়। শৈশব ও কৈশোর কেটেছে মুরাদপুর গ্রামে। নিয়ম মেনে স্কুলে যাওয়া

বিস্তারিত পড়ুন

কাদের মোল্লার হত্যাযজ্ঞের সাক্ষী আমি

‘দিনটি ছিল ২৩ মার্চ ১৯৭১। মধ্যরাত। কালসী আহুরা গ্রামে আগুন দেয় বিহারিরা। আগুনে পুড়ে ছাই হয় এক মাস্টারের বাড়ি। শুরু

বিস্তারিত পড়ুন

পরের যুদ্ধটা ছিল আরও কঠিন

‘‘২৬ মার্চ, ১৯৭১। ভোরবেলা। লোকমুখে খবর আসে ঢাকায় আর্মি নেমেছে। গ্রামের সবার মনে আতঙ্ক। পাকিস্তানি সেনারা এই বুঝি এসে পড়ে!

বিস্তারিত পড়ুন

রাজাকারের শাস্তি হলে শান্তি পেতাম

লোকটির নাম নসু পাগলা। গ্রামের সবাই তাকে এ নামেই চেনে। বড় সংসার তাদের। সাত ভাই ও আট বোন। নসু চতুর্থ।

বিস্তারিত পড়ুন

‘নতুন প্রজন্ম সত্য জানতে চায়’

‘‘ট্রেনিং তখন শেষ। এবার রণাঙ্গনে যাওয়ার পালা। কে কোন এলাকায় যুদ্ধ করবে? আমরা নিজ এলাকায় যাওয়ার ইচ্ছার কথা বলি। অপারেশনের

বিস্তারিত পড়ুন

‘রাজাকার তো রাজাকারই থাকে’

ছোটবেলা থেকেই ফরিদ মিয়া ছিলেন দুরন্ত প্রকৃতির। স্কুল পালিয়ে ফুটবল খেলা আর পথে-ঘাটে ঘুরে বেড়ানোতেই ছিল তার আনন্দ। বড় সন্তান

বিস্তারিত পড়ুন

ঝাড়ুয়ার বিল গণহত্যা

বিলটির অধিকাংশ স্থানের মাটি কাঁটা। এ কাজ চলছে কয়েক বছর ধরেই। কোদাল চালানো হয়েছে তার বুকের ওপর। লাল মাটির নানা

বিস্তারিত পড়ুন

জাঠিভাঙ্গা গণহত্যা

ঠাকুরগাঁও থেকে পঞ্চগড়ের বাসে প্রায় ত্রিশ কিলো পথ চলতেই মিলে ভুল্লী বাজার। বাজারের পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে একটি নদী। স্থানীয়

বিস্তারিত পড়ুন

পীরগঞ্জের গণকবর

উপজেলাটির নাম পীরগঞ্জ। ঠাকুরগাঁও জেলার এ উপজেলার কেন এমন নামকরণ? এ প্রশ্নের উত্তর জানতে চোখ ফেরাতে হবে মোঘল আমলের দিকে।

বিস্তারিত পড়ুন

জেবি স্কুলে গণকবর

স্কুলভবনের পেছনেই কবরটি। সাধারণ কবরের চেয়ে বেশ বড়। বর্গাকার। সামনের একটি ভবন আড়াল করে রেখেছে কবরটিকে। কবরের চারপাশ ছোট্ট দেয়ালে

বিস্তারিত পড়ুন

এই আন্দোলনকে দ্বিতীয় প্রজম্মের মুক্তিযুদ্ধ বলা হচ্ছে – ডা. ইমরান এইচ সরকার

টেলিফোনে যোগাযোগ হচ্ছিল। কিন্তু এই মুহূর্তে দীর্ঘ সাক্ষাৎকারের জন্য সময় বের করা ডা. ইমরান এইচ সরকারের পক্ষে কঠিন। অবশেষে অনেক

বিস্তারিত পড়ুন

রাজাকারের বচন

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচার চলছে। ইতোমধ্যে রায় ঘোষণা করা হয়েছে তিনজনের। কাদের মোল্লার রায় ঘোষণার পর তিনি ভি চিহৃ দেখিয়ে

বিস্তারিত পড়ুন

‘বঙ্গবন্ধুর কথাডা কইলজায় লাগি গেছে’

‘২৫ মার্চ ১৯৭১। মধ্যরাত। শুরু হয় অপারেশ সার্চ লাইট। ঢাকার রাস্তায় নামে পাকিস্তান সেনা। রক্তাক্ত হয় রাজারবাগ পুলিশ লাইন, জগন্নাথ

বিস্তারিত পড়ুন

জয় বাংলা ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের স্লোগান

সাংবাদিকদের কাছে অনেক সাক্ষাতকার দিয়েছি। তা ছাপাও হয়েছে। সেই সাক্ষাতকার পড়ে অনেকেই যুদ্ধকালীন সময়ের ঘটনা বানিয়ে নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা দাবী করে।

বিস্তারিত পড়ুন

বিছুয়া বাহিনীর কেছকা মাইর

‘ ছাগলনাইয়ায় পিস কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন কানু মিয়া । কিন্তু ভেতরে ভেতরে তার যোগাযোগ ছিল মুক্তিবাহিনীদের সঙ্গে। প্রতিরাতেই তিনি গোপনে

বিস্তারিত পড়ুন

২০১৩ সাল ১৯৭১ হয়ে গিয়েছে!! – মুহম্মদ জাফর ইকবাল

আজ আমি এসেছি তোমাদের কাছে ক্ষমা চাইবার জন্য! আমি পত্রিকায় লিখেছি- যে এই নতুন জেনারেশন খালি ফেসবুকে লাইক দেয়, এরা

বিস্তারিত পড়ুন

খোকন বিক্রমপুরীর পতাকা

হরেক মানুষের আনাগোনা এই ঢাকায়। নানা মানুষের নানা কথা, নানা মত। ক্যামেরা নিয়ে বের হয়েছি সে মানুষগুলোর সান্নিধ্যের আশায়। মিরপুর

বিস্তারিত পড়ুন

My Books | রক্তে রাঙা একাত্তর

রক্তে রাঙা একাত্তর : এই পৃথিবীতে যা কিছুকে ভালোবাসা সম্ভব তার মধ্যে সবচেয়ে তীব্র ভালোবাসাটুকু হতে পারে শুধুমাত্র মাতৃভূমির জন্যে।

বিস্তারিত পড়ুন

রাজাকার কীভাবে প্রেসিডেন্ট হন? এদেশের মানুষ বানালে আপনারা কী করবেন?

মিরপুর ইস্টার্ন হাউজিংয়ের এ বাড়িটিতে ভাড়া থাকেন মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হান্নানের মেয়ে আসমা উল হুসনার। চিকিৎসা করাতে মেয়ের বাড়িতে এসেছেন মুক্তিযোদ্ধা

বিস্তারিত পড়ুন

আমরা শুধুই মুক্তিযোদ্ধা

‘আমাদের বাড়ি ছিল পদ্মার পারে। চর এলাকা। দিনভর নদীর বুকে সাঁতার কাটা আর বালিজাল দিয়ে মাছ ধরাতেই ছিল আনন্দ। বন্ধু

বিস্তারিত পড়ুন

একজন রাজাকার সব সময়ই রাজাকার: সাদেক আলী

যুদ্ধে যাওয়ার ইচ্ছার কথা শুনে মা হাউমাউ করে কেঁদে ওঠেন। ছেলেকে তিনি কিছুতেই ছাড়বেন না। যুদ্ধে গিয়ে জীবন নিয়ে ফিরবে

বিস্তারিত পড়ুন

পায়ের ভেতর এখনো গুলি আছে

এক মুক্তিযোদ্ধার পায়ের ভেতর এখনো গুলি আছে। একচল্লিশ বছর ধরে শরীরের ভেতর বাসা বেঁধেছে সে গুলিটি। জোরে হাঁটতে কিংবা সিঁড়ি

বিস্তারিত পড়ুন

‘আমরা ছিলাম গেরিলা’

‘ট্রেনিং তখন শেষ। আমাদের পাঠানো হয় তরঙ্গপুরে। সেখান থেকে বরাহার ক্যাম্পে। ক্যাম্পের দায়িত্বে ছিলেন এসএস বার্ট। তার নির্দেশেই আমার অপারেশন

বিস্তারিত পড়ুন

জগথায় গণকবর

‘পাকিস্তানি আর্মিদের ক্যাম্প ছিল পীরগঞ্জ হাসপাতালে। এক সকালে তারা হানা দেয় আমাদের বাড়িতে। ধরে নিয়ে যায় আমার বাবা দর্শন আলীকে।

বিস্তারিত পড়ুন

দুই নম্বর মুক্তিযোদ্ধারা অট্টালিকা বানাইছে

বাড়ির নাম আসমা কটেজ। সাইনবোর্ডে তেমনটাই লেখা। মিরপুর ইস্টার্ন হাউজিংয়ের এ বাড়িটি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হান্নানের মেয়ে আসমা উল হুসনার। চিকিৎসা

বিস্তারিত পড়ুন

ভদ্র ম্রং: এক আদিবাসী মুক্তিযোদ্ধা

‘১৯৭১ সাল। আমি তখন হালুয়াঘাট মডেল স্কুলে ক্লাস টেনের ছাত্র। বন্ধুরা সবাই মিলে প্রায়ই গোলাগুলি খেলা খেলতাম। দুই দলে ভাগ

বিস্তারিত পড়ুন

এক মুক্তিযোদ্ধা অন্য মুক্তিযোদ্ধাকে বলছেন রাজাকার

‘৫ ডিসেম্বর ১৯৭১। আমরা তখন বিজয়নগর গ্রামে। ১৩ জনের গেরিলা দলের আমি কমান্ডার। খুব কাছেই যশোরের খোঁজারহাট বাজার। বিকেলের দিকে

বিস্তারিত পড়ুন

মুজিবনগরে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত

বৈশাখ মাস। প্রচন্ড রোদ। তবুও চারপাশে শীতল অনুভূতি। বড় বড় আমগাছ। সংখ্যায় দুই হাজারের মতো। অধিকাংশই শতবর্ষী। দিনময় এখানে চলে

বিস্তারিত পড়ুন

শহীদ জননীর কথা

জাহানারা ইমাম  শহীদ জননী, লেখিকা, কথাসাহিত্যিক, শিক্ষাবিদ এবং একাত্তরের ঘাতক দালাল বিরোধী আন্দোলনের নেত্রী। তাঁর বিখ্যাত গ্রন্থ একাত্তরের দিনগুলি। একাত্তরে

বিস্তারিত পড়ুন

আল বদরের লোকেরা ধরে নিয়ে যায় সাংবাদিক সিরাজুদ্দীন হোসেন-কে

সিরাজুদ্দীন হোসেন ছিলেন এ দেশের সংবাদপত্র জগতের অন্যতম পুরোধা। তিনি ‘দৈনিক ইত্তেফাক’-এর বার্তা ও কার্যনির্বাহী সম্পাদক ছিলেন৷ পাকিস্তান আমলে যে

বিস্তারিত পড়ুন

একটি ভুল, প্রশ্ন অনেকগুলো !

বৈশাখ মাস। প্রচন্ড রোদ। তবুও চারপাশে শীতল অনুভূতি। বড় বড় আমগাছ। সংখ্যায় দুই হাজারের মতো। অধিকাংশই শতবর্ষী। দিনময় এখানে চলে

বিস্তারিত পড়ুন

কোন দেশের জন্য আমরা যুদ্ধ করলাম ?

‘২৫ মার্চ ১৯৭১। রাত ১ টা। হঠাৎ লাম বেজে ওঠে বগুড়ার পুলিশ ব্যারাকে। ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইনে আক্রমণ হয়েছে। খবরটি

বিস্তারিত পড়ুন

মুজিবনগরে গার্ড অব অনারে

বৈদ্যনাথতলা থেকে পলাশীর দূরত্ব মাত্র কুড়ি মাইল। ১৭৫৭ সালে পলাশীর আম্রকাননে অস্তমিত হয়েছিল বাংলার স্বাধীনতার শেষ সূর্যটি। কিন্ত মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার

বিস্তারিত পড়ুন

একজন রাজাকার সব সময়ই রাজাকার

যুদ্ধে যাওয়ার ইচ্ছার কথা শুনে মা হাউমাউ করে কেঁদে ওঠেন। ছেলেকে তিনি কিছুতেই ছাড়বেন না। যুদ্ধে গিয়ে কি কেউ জীবন

বিস্তারিত পড়ুন

অপারেশন সার্চলাইট : সেই ভয়াল কালোরাত্রি

অপারেশন সার্চলাইট (Operation Searchlight) ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ থেকে শুরু হওয়া পাকিস্তানী সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত একটি পরিকল্পিত গণহত্যা। এই গণহত্যা

বিস্তারিত পড়ুন

গোলারহাটের বধ্যভূমি

১৯৭১ সাল। বিনত বাবু তখন ইন্টারমিডিয়েটের ছাত্র। পরিবারের সঙ্গে থাকেন সৈয়দপুর শহরের দিনাজপুর রোডের বাড়িতে। শহরটিতে বিহারিরা সংখ্যায় ছিল অধিক।

বিস্তারিত পড়ুন

নতুনেরা এ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে

‘ভারতের তরঙ্গপুর ক্যাম্প থেকে আমরা ঢুকে পড়ি ঠাকুরগাঁও জেলায়। জাবরহাট নামক গ্রামের এক স্কুলে আশ্রয় নিই সবাই। গ্রামের অধিকাংশ লোকই

বিস্তারিত পড়ুন

শহীদ আসাদ : গভীর শ্রদ্ধায় স্মরি তোমায়

আমানুল্লাহ আসাদুজ্জামান যিনি শহীদ আসাদ নামেই বেশি পরিচিত।তিনি আইয়ুবশাহীর পতনের দাবীতে মিছিল করার সময় জানুয়ারি ২০, ১৯৬৯ সালে পুলিশের গুলিতে

বিস্তারিত পড়ুন

বুকের ভেতরটা এখনও কেঁপে ওঠে

‘ট্রেনিং শেষ। এবার রণাঙ্গনে যাওয়ার পালা। ইন্দ্রনগর ট্রেনিং ক্যাম্প হতে আমাকে পাঠানো হয় ৪ নং সেক্টারে। সেক্টর কমান্ডার ছিলেন বীর

বিস্তারিত পড়ুন

কাশেম মোল্লার রেডিও

১৯৭১ সাল। পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর একটি ক্যাম্প ছিল পাকশী পেপার মিল ও হার্ডিঞ্জ ব্রিজ এলাকায়। খুব কাছেই রূপপুর গ্রাম। গ্রামের প্রধান

বিস্তারিত পড়ুন

‘যুদ্ধ করেই তো দেশটা পেয়েছি’

‘বড়গ্রাম ক্যাম্প থেকে একদিন ডেকে পাঠানো হয় আমাকে। যেতে হবে আঙ্গিনাবাদ ক্যাম্পে। সেখানে সবাই জড়ো হই। ক্যাপ্টেন রনজিৎ শিং উচ্চকন্ঠে

বিস্তারিত পড়ুন

‘তবুও তো স্বাধীনতা পেয়েছি’

‘জেলের ছদ্মবেশে আমরা একবার ঢুকে পড়ি বাংলাদেশে।  বিলে জাল দিয়ে মাছ ধরার ভান করে জেলের ছদ্মবেশে আমরা আসি রাণীপুকুর বাজারে।

বিস্তারিত পড়ুন

হু হু করে কেঁদে উঠত মনটা

‘ইস্ট পাকিস্তান রাইফেলসের দিনাজপুর সেক্টরের হেডকোয়ার্টার্স ছিল দিনাজপুর শহরের দক্ষিণে কুটিবাড়িতে। সেখানকার বাঙালি ইপিআর সদস্যরা আশপাশের গ্রামের মানুষদের সঙ্গে গোপনে

বিস্তারিত পড়ুন

একাত্তরের টগবগে যুবক

‘বড়গ্রাম ক্যাম্প থেকে একদিন ডেকে পাঠানো হয় আমাকে। যেতে হবে আঙ্গিনাবাদ ক্যাম্পে। সেখানে সবাই জড়ো হই। ক্যাপ্টেন রনজিৎ শিং উচ্চকন্ঠে

বিস্তারিত পড়ুন

এক মুক্তিযোদ্ধা আদিবাসীর খোঁজে

ডিসেম্বর। আনন্দ আর কান্নার বিজয়ের মাস। চারদিকে চলছে নানা অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রস্ততি। এরই মধ্যে বের হয়েছি একজন অভিমানী মুক্তিযোদ্ধার খোঁজে।

বিস্তারিত পড়ুন

শহীদপাড়ায় গণকবর

আলতাফ আলীর বাড়িটি মূল রাস্তার পাশেই। পাকা বাড়ির পেছনেই ছোট্ট একটি বাগান। বাগানে শিম, কলা আর হরেক রকমের গাছগাছালি। ছোট

বিস্তারিত পড়ুন

রক্ত পিয়াসী খুনিয়া দিঘি

১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় হানাদার পাক বাহিনী কয়েক হাজার বাঙালিকে হত্যা করে এই দিঘিটিতে ফেলে রাখে। স্বাধীনের পর এই

বিস্তারিত পড়ুন

কাশেম মোল্লার অস্ত্র ছিল রেডিও

৭১-এ পাকিস্তানিদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে চায়ের দোকানে তিনি রেডিওতে বাংলা খবর শোনাতেন।  রাতে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র এবং বিবিসি, ভয়েজ

বিস্তারিত পড়ুন

বহলায় শহীদদের গণকবর

কবরটি রাস্তার পাশেই। সাধারণ কবরের চেয়ে বেশ বড়। পাশেই ধান মাড়াইয়ের কাজ চলছে। মাঝেমধ্যেই ধানের খড় এসে ঢেকে দিচ্ছে কবরের

বিস্তারিত পড়ুন

সেবস্তিয়ান মার্ডী : এক আদিবাসী মুক্তিযোদ্ধা

মাদলের তাল ক্রমেই বেড়ে চলেছে। বাড়ছে এতদল নারী কন্ঠের সমবেত গানের সুর। গানের সাথে তাল মিলিয়ে নাচছে তারা। হলদে শাড়ি

বিস্তারিত পড়ুন

যুদ্ধাহতের ভাষ্য

প্রকাশক : ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ। প্রকাশিত হবে অমর একুশে গ্রন্থমেলা -২০১৪ তে.. Please follow and like us:

বিস্তারিত পড়ুন